মোট প্রদর্শন : 118 Views

বাংলাদেশ জেগে ওঠা চর রক্ষণাবেক্ষণে জোর দিচ্ছে

জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় বাংলাদেশকে আরো বেশি সহায়তা দিতে চায় বিশ্বব্যাংক। এ বিষয়ে সংস্থাটি বাংলাদেশের সামনে কোন বিষয়গুলো প্রাধান্য পাচ্ছে তা জানতে চেয়েছে। রবিবার ss-27বিশ্বব্যাংকের একটি প্রতিনিধিদল সচিবালয়ে পরিবেশ ও বন মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর সঙ্গে বৈঠক করে এ বিষয়ে আলোচনা করেন।

বৈঠকে আনোয়ার হোসন মঞ্জু বলেন, এ মুহূর্তে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো বাংলাদেশ সীমানায় যেসব চর জেগে উঠছে সেগুলো রক্ষণাবেক্ষণ করা। ইতিমধ্যে কাজটি শুরু করেছে বাংলাদেশ। জেগে ওঠা চরগুলোতে বৃক্ষরোপণের পর সেগুলো ভূমি মন্ত্রণালয়ের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

বিশ্বব্যাংকের ঊর্ধ্বতন পরিচালক জুলিয়া বাকনলের নেতৃত্বে প্রতিনিধিদল জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় বাংলাদেশ যেসব কাজ করছে তা জানতে চায়। বিশ্বব্যাংকের সহায়তায় বাংলাদেশ সরকার যেসব প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে সেগুলোর বিষয়ে আনোয়ার হোসেন মঞ্জু জুলিয়াকে অবহিত করেন। বিশ্বব্যাংকের পক্ষ থেকে চলমান প্রকল্পগুলোর পাশাপাশি অন্যান্য প্রকল্পেও বাংলাদেশকে সহায়তা দেওয়ার কথা জানানো হয়।

বৈঠকে পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. কামাল উদ্দিন আহমেদসহ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। অপরদিকে, বিশ্বব্যাংকের পক্ষে সংস্থার প্র্যাকটিস ম্যানেজার জেনিয়া লেভসকি, সিনিয়র এনভায়রনমেন্টাল স্পেশালিস্ট তাপস পাল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, বিশ্বব্যাংকের সহায়তায় পরিবেশ খাতে বাংলাদেশ বেশকিছু প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। এগুলোর মধ্যে রয়েছে, পরিবেশ অধিদপ্তরের সক্ষমতা বাড়ানোর জন্য বাতাসের মান পরীক্ষা করা, ই ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট প্রতিষ্ঠা করা, দেশের ১১ সিটি কর্পোরেশনে পরিবেশবান্ধব মেডিকেল বর্জ্য শোধনাগার নির্মাণ, রাজধানী ঢাকায় সমন্বিত পানির মান মনিটরিং প্রকল্প, পরিবেশবান্ধব চুলা প্রকল্প, কেন্দ্রীয় পরিবেশ ল্যাব স্থাপন এবং শিল্পের জন্য অনলাইন মনিটরিং ব্যবস্থা চালুকরণ উল্লেখযোগ্য। ইত্তেফাক