মোট প্রদর্শন : 232 Views

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় সেপ্টেম্বরে : সুরঞ্জিত

01_5316

বহুল আলোচিত ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় আগামী মাসে ( সেপ্টেম্বরে) হতে পারে বলে আশা প্রকাশ করেছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত।

বৃহস্পতিবার সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত  কমিটির ৩১তম বৈঠক শেষে মিডিয়া সেন্টারে প্রেস বিফ্রিং এ কথা জানান তিনি। এসময় কমিটির সদস্য তালুকদার মো. ইউনুস উপস্থিত ছিলেন।

সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন, সংসদীয় কমিটির প্রত্যেক বৈঠকে ২১ আগস্ট হামলা মামলার অগ্রগতি জানানোর বিষয়ে সংসদীয় কমিটির জন্য একটি নির্দেশনা রয়েছে। সে হিসেবে আজকের বৈঠকেও আইনমন্ত্রী ব্যারিষ্টার আনিসুল হক বিষয়টি অবহিত করেছেন। তিনি বলেছেন, বর্তমানে ২২৪তম সাক্ষীর জেরা চলছে। আর দুই সাক্ষীর জেরা বাকি আছে। এরপরই মামলার রায় হবে। মন্ত্রী জানিয়েছেন সেপ্টেম্বরে রায় হতে পারে।

প্রসঙ্গত, ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের জনসভায় গ্রেনেড হামলায় ২২ জন নিহত হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে ওই হামলা হলেও তিনি প্রাণে বেঁচে যান।

সুরঞ্জিত আরো বলেন, বৈঠকে Supreme Court Judges (Leave, Pension and Privileges) (Amendment) Bill, 2015 এবং বাংলাদেশ ইপিজেড শ্রম বিল, ২০১৬ এর উপর বিস্তারিত আলোচনা হয়। পরে পুঙ্খানুপুংখভাবে পরীক্ষা-নিরীক্ষা এবং প্রয়োজনীয় সংশোধন ও সংযোজনসহ সংসদে উপস্থাপনের জন্য রিপোর্ট চূড়ান্ত করা হয়।

তিনি বলেন, প্রায় একবছর আগে বিচারপতিদের অবসরভাতা বিষয়ক বিলটি সংসদে উত্থাপিত হলেও সুপ্রিম কোর্টের পক্ষ থেকে কমিটির বৈঠকে কোনো প্রতিনিধি না থাকায় তা চূড়ান্ত করা যাচ্ছিল না।

এর আগে এসব বিষয়ে প্রতিনিধি উপস্থিত থাকলেও নতুন প্রধান বিচারপতি এসে তা বন্ধ করে দেন। তাদের যুক্তি ছিল এই কমিটিতে যদি সুপ্রিম কোর্টের প্রতিনিধি পাঠালে সর্বোচ্চ আদালতের অবমাননা হবে। অবশেষে আজকের (১১ আগষ্ট) বৈঠকে রেজিস্ট্রার জেনারেল উপস্থিত ছিলেন। এতে সংসদ ও সংবিধানের জয় হয়েছে।

সুরঞ্জিত সেন গুপ্তের সভাপতিত্বে সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন, কমিটির সদস্য আইনমন্ত্রী আনিসুল হক,  মো. তাজুল ইসলাম চৌধুরী, আবদুল মতিন খসরু, বেগম সাহারা খাতুন, মো. শামসুল হক টুকু, মোঃ আব্দুল মজিদ খান ও সফুরা বেগম বৈঠকে অংশ নেন। বৈঠকে বিশেষ আমন্ত্রণে উপস্থিত ছিলেন ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর।

বৈঠকে আইন কমিশনের চেয়ারম্যান, প্রধানমন্ত্রীর মূখ্য সচিব, আইন, বিচার ও সংসদ বিভাগের সচিবসহ মন্ত্রণালয় এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।